১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা

article - ১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা

১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা (ইংরেজি: 1960 U-2 incident) হচ্ছে স্নায়ু যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে সংঘটিত একটি বিমান সংক্রান্ত ঘটনা। এটি সংঘটিত হয় ১৯৬০ সালের ১ মে, যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি ডোয়াইট ডি. আইজেনহাওয়ারের মেয়াদকালীন সময়ে। সেসময় সোভিয়েত ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশকৃত একটি মার্কিন ইউ-২গোয়েন্দা বিমানকে সোভিয়েত ইউনিয়ন তার সীমানায় গুলি করে ভূপাতিত করে। মার্কিন সরকার প্রথমে এই বিমানটি পাঠানোর উদ্দেশ্য এবং কার্যক্রম সম্পর্কে অস্বীকার করলেও পরবর্তীকালে চাপের মুখে স্বীকার করে যে, এটির কার্যক্রম ছিলো একটি গোপন ও সন্দেহভাজন বিমানের মতো। এই স্বীকারোক্তির কারণ ছিলো সোভিয়েত সরকার বিমানটি অধিকাংশ ধ্বংসাবশেষ ও একমাত্র বৈমানিক ফ্রান্সিস গ্যারি পাওয়ারসকে আটক করে, যা মার্কিন সরকারকে এই ঘটনাটিকে স্বীকার করতে বাধ্য করে। মাত্র দুই সপ্তাহ আগে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে পূর্ব ও পশ্চিমের মধ্যে পূর্ব নির্ধারিত এক সভার আগে এ ধরনের ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রকে যথেষ্ট লজ্জার মধ্যে ফেলে দেয়।[1] একই সাথে এটি সোভিয়েত ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের মধ্যে একটি মোটা দাগ টেনে দেয়।

আক্রান্ত ঘটনায় অংশ নেওয়া ইউ-২ বিমানটির মতো অপর একটি ইউ-২ গোয়েন্দা বিমান।
আক্রান্ত ইউ-২ বিমানের ধ্বংসাবশেষের কিছু অংশ

. . . ১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা . . .

আকাশসীমায় সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখা যে কোন দেশের অধিকার এবং বিশেষত একটি সামরিক বিমানের অনুপ্রবেশের বিপরীতে রাষ্ট্র যে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করার অধিকার রাখে।

ইউ-২ ছিল একটি মার্কিন গোয়েন্দা বিমান, এবং এর চালক ছিলেন কর্নেল ফ্রান্সিস গ্যারি পাওয়ারস। একই সাথে তিনি ছিলেন একজন সিআইএ এজেন্ট। তিনি ইউ-২ বিমানের সাহায্যে সিআইএ-এর জন্য সোভিয়েত ইউনিয়নের এলাকা থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে উদ্যত হন। সমগ্র বিষয়টি তদারকপূর্বক পাওয়ারস দীর্ঘদিন ধরেই কাজটি করে আসছিলেন, কিন্তু অজ্ঞাত ভাবে ১৯৬০ সালের ১ মে ইউ-২ বিমানটি সোভিয়েত আকাশসীমায় প্রবেশ করলে সোভিয়েত ইউনিয়নের একটি মিগ-১৯এসইউ-৯ যুদ্ধবিমান পাওয়ারসের বিমানটিকে লক্ষ্য করে অবতরণ করার সংকেত পাঠায়। কিন্তু পরবর্তীকালে ইউ-২ অবতরণ না করায় ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষপে করে বিমানটিকে ভূপাতিত করা হয়। বৈমানিক জি. পাওয়ারস প্যারাসুটের সাহায্যে ভূমিতে অবতরণ করতে সক্ষম হন। অবতরণের পরপরই সোভিয়েত সামরিক বাহিনী পাওয়ারসকে গ্রেফতার করে, এবং পরবর্তীকালে সোভিয়েত আদালতে তার বিচার করা হয়।

সোভিয়েত আদালত সোভিয়েত বাহিনীর এই কাজকে যথার্থ বিবেচনা করে এবং মি. পাওয়ারস কে দোষী সাব্যস্ত করে ১০ বছররে সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। পরবর্তীকালে তাকে সাইবেরিয়ায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এই মামলা থেকে এই নীতি প্রতিষ্ঠিত হয় যে, রাষ্ট্র তার আকাশ সীমায় সার্বভৌমত্ব অক্ষণ্ণু রাখতে যে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে। এর সত্যতা প্রমাণিত হয় এই ঘটনা থেকে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সোভিয়েত এর এই সব কর্মকান্ডের কোন বিরধিতা করে নি।

. . . ১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা . . .

This article is issued from web site Wikipedia. The original article may be a bit shortened or modified. Some links may have been modified. The text is licensed under “Creative Commons – Attribution – Sharealike” [1] and some of the text can also be licensed under the terms of the “GNU Free Documentation License” [2]. Additional terms may apply for the media files. By using this site, you agree to our Legal pages . Web links: [1] [2]

. . . ১৯৬০-এর ইউ-২ ঘটনা . . .

Previous post জতুগৃহ (১৯৬৪ এর চলচ্চিত্র)
Next post রিচার্ড টেম্পল